• Home
  • রিভিউ
  • হ্যারি পটার এন্ড দি ফিলসফারস স্টোন

হ্যারি পটার এন্ড দি ফিলসফারস স্টোন

হ্যারি পটার এন্ড দি ফিলসফারস স্টোন হ্যারি পটার সিরিজের সুখ্যাতি ছোটবেলা থেকেই অনেক  শুনেছি।কিন্তু হ্যারি পটার নামের সেই অদ্ভুত বালকের […]

হ্যারি পটার এন্ড দি ফিলসফারস স্টোন

হ্যারি পটার এন্ড দি ফিলসফারস স্টোন

হ্যারি পটার সিরিজের সুখ্যাতি ছোটবেলা থেকেই অনেক  শুনেছি।কিন্তু হ্যারি পটার নামের সেই অদ্ভুত বালকের সাথে পরিচিত হতে পারিনি।তাই হ্যারি নামের এই বালকটিকে জানতে পড়া শুরু করেছিলাম হ্যারি পটার সিরিজের প্রথম বই হ্যারি পটার এন্ড দি ফিলসফারস স্টোন।এখন বুঝতে পারি কেনো এই বইয়ের এতটা সুখ্যাতি।

হ্যারি পটার সিরিজ সম্পরকে জানতে- হ্যারি পটার সিরিজ পড়ুন 

হ্যারি পটার এন্ড দি ফিলসফারস স্টোন নিয়েই কথা বলব আজকে– 

হ্যারি পটার এন্ড দি ফিলোসফাস স্টোন  বইটি ধারাবাহিকভাবে লেখা হলেও অধ্যায় আকারে ভাগ করা হয়েছে। 

বইটিতে সতেরোটি অধ্যায় রয়েছে।একটি অধ্যায় তার পরের অধ্যায় ছাড়া অসম্পূর্ণ থেকে যায়।

কাহিনী সংক্ষেপণ

এই গল্পের শুরু হয় হ্যারি পটার  নামের এক অনাথ বালকের কষ্ট দিয়ে। হ্যারির বাবা মা ছিলেন বিখ্যাত জাদুকর। কিন্তু ভোলডেমর্ট নামের কালো জাদুকর তাদের খুন করে। তারপর হ্যারিকে রাখা হয় তার মাগল খালা খালুর কাছে।ডার্সলি পরিবার হ্যারির থেকে তার জীবনের সত্য ঘটনাগুলো লুকিয়ে রাখেন এবং অনেক অত্যাচার করেন।হ্যারির থাকার জায়গা হয় সিঁড়ির নিচের কাবোর্ড এ।এরপর হ্যারির যখন দশ বছর হয় তখন থেকেই হোগার্টস জাদু

বিদ্যালয় থেকে চিঠি আসতে থাকে-এই বিদ্যালয়েই তার মা বাবা লেখাপড়া করতেন।কিন্তু ডার্সলি পরিবার চাইতো না হ্যারি তার জাদুশক্তি সম্পর্কে কিছু জানুক।তাই তারা চিঠিগুলো হ্যারিকে দিত না।কিন্তু  হ্যারিকে তার খালা খালু চিঠিগুলো থেকে দূরে রাখার জন্য যেখানে নিয়ে যেতেন আশ্চর্যজনক ভাবে সেখানেই চিঠি পৌঁছে যেত।হ্যারির একাদশতম জন্মদিনে হ্যাগ্রিড নিজে তার কাছে চিঠি পৌঁছে দেয়।হ্যারি ভর্তি হয় হোগার্টস জাদু বিদ্য টাইম ম্যানেজমেন্ট বইয়ের রিভিউ পড়ুন

এরপর থেকেই মূলত হ্যারির দুঃসাহসিক অভিযানের শুরু হয়। হোগার্টসের বিখ্যাত কিডিচ খেলায় ভালো করে হ্যারি রাতারাতি বিদ্যালয়ের সবার কাছে পরিচিত হয়ে ওঠে।রন তার সর্বক্ষণের সঙ্গী। ট্রল নামের এক দানবের হাত থেকে তারা হারমিওনকে বাঁচায়। তারপর থেকে এই তিন বন্ধু মিলে প্রতিপক্ষের সব ষড়যন্ত্র মাটি  করে দিতে শুরু করে। একসময় তারা খোঁজ পায় পরশ পাথরের,যে পাথরের জন্য ভোল্ডেমর্ট ষড়যন্ত্র করছিল।এই পাথরটিই হচ্ছে ফিলসফারস স্টোন।আর এই পাথর উদ্ধারের কাহিনীই মূলত হ্যারি পটার এন্ড দি ফিলসফারস স্টোন বইয়ে হ্যারির মূল অভিযান।এই অভিযানের রহস্য জানতে হলে অবশ্যই বইটি পড়তে হবে। 

গীতাঞ্জলী কাব্যগ্রন্থের রিভিউ পড়ুন 

লেখনশৈলী 

লেখিকা জে কে রাওলিং অত্যন্ত বোধগম্য ভাষায় বইটি লিখেছেন। ইংরেজি এবং বাংলা অনুবাদ-দুটি বইয়ই পড়েছি আমি।দুটিই আমার কাছে অসাধারণ মনে হয়েছে।লেখিকা বইয়ের প্রতিটি লাইন এমন ভাবে সৃষ্টি করেছেন যে এক লাইন পড়লে তার পরের লাইনে কী আছে জানার জন্য নিজের অজান্তেই কৌতূহল জন্মে যায়। 

চরিত্র সমূহ

হ্যারি পটার এন্ড দি ফিলসফারস স্টোন
  • ১)হ্যারি পটার
  • ২)রন উইজলি
  • ৩) হারমিওন গ্রেঞ্জার 
  • ৪)ডাম্বোলডোর সহ আরো অনেকে 

হ্যারি পটার সিরিজের চরিত্রগুলো সংক্ষিপ বর্ণনাসহ জানতেহ্যারি পটার সিরিজের চরিত্র সমূহ পড়ুন 

পাঠ  প্রতিক্রিয়া

হ্যারি পটার এন্ড দি ফিলোসফাস স্টোন বইটি এক কথায় অসাধারণ।তুমুল উত্তেজনায় ভরা একটা বই। এই বইয়ে আমার সবচেয়ে পছন্দের চরিত্র হারমিওন নামের মেয়েটি।আমার পড়া সেরা বইগুলোর মধ্যে হ্যারি পটার এন্ড দি ফিলসফারস স্টোন বইটি জায়গা করে নিয়েছে।আশা করি বইটির প্রতি আমার ভালোবাসা কতটুকু তা বোঝাতে পেরেছি। 

লেখক পরিচিতি

লেখিকা জে কে রাওলিং এর পুরো নাম জোয়ান ক্যাথলিন রাওলিং। ইংল্যান্ডের ফরেস্ট অব ডিন- এ তার বেড়ে ওঠা। এক্সিটার ইউনিভার্সিটি থেকে তিনি স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন। ছোটবেলা থেকেই ছিল লেখালেখির শখ। ছয় বছর বয়েসেই র‍্যাবিট নামের একটি গল্পের বই প্রকাশ করেন তিনি। মূলত জীবিকার তাগিদেই উপন্যাস লেখা শুরু করেন তিনি। ভালো কলম না থাকায় অধিকাংশ সময়েই তিনি গল্পের কাহিনী সম্পর্কে ভাবতেন। তার এই ভাবনার ফসল হ্যারি পটার সিরিজ।

বইয়ের মান

বইয়ের মান মোটামোটি ভালো।অনুবাদ আমার কাছে ভালোই মনে হয়েছে। তবে কিছু বানান ভুল আছে। এটা হয়তো প্রুফ রিডিং ভালো না হওয়ার জন্যেই হয়েছে।সব মিলিয়ে বইয়ের মান খারাপ না। 

ব্যক্তিগত রেটিংঃ ১০/১০ 

  • বই পরিচিতি
  • বইয়ের নামঃহ্যারি পটার এন্ড দি ফিলসফারস স্টোন 
  • লেখিকাঃজে কে রাওলিং
  • অনুবাদঃ সোহরাব হাসান এবং শেহানউদ্দিন আহমেদ 
  • জনরাঃ কল্পকাহিনী, থ্রিলার, রহস্য 
  • প্রকাশকঃমেসবাহউদ্দীন আহমেদ
  • প্রকাশনীঃঅঙ্কুর প্রকাশনী
  • গ্রন্থস্বত্বঃ১৯৯৭,জে কে রাওলিং
  • প্রচ্ছদস্বত্বঃওয়ার্নার ব্রাদার্স
  • হ্যারি পটার, নাম, চরিত্র এবং এ সম্পর্কিত প্রতীকের ট্রেডমার্ক ও কপরাইটঃ২০০০ ওয়ার্নার ব্রাদার্স
  • বাংলা ভাষার গ্রন্থস্বত্বঃঅঙ্কুর প্রকাশনী
  • প্রথম প্রকাশঃগ্রেট ব্রিটেন,১৯৯৭
  • ব্লুমসবারি পাবলিশিং,পিএলসি 
  • বাংলা ভাষায় প্রথম প্রকাশঃবাংলাদেশ, জুলাই ২০০৩ 
  • রিভিউয়ারঃ সুমাইয়া শেফা 

এরকম আরো বইয়ের রিভিউ পেতে ভিজিট করুন কন্ঠনীড় ওয়েবসাইট। 


Popular Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.