রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সেরা উক্তি সমূহ ( উৎস সহ )

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সেরা উক্তি সমূহ ( উৎস সহ ) রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর( ৭ মে ১৮৬১ – ৭ আগস্ট ১৯৪১, ২৫ বৈশাখ […]

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সেরা উক্তি সমূহ ( উৎস সহ )

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর( ৭ মে ১৮৬১ – ৭ আগস্ট ১৯৪১, ২৫ বৈশাখ ১২৬৮- ২২ শ্রাবণ ১৩৪৮ বঙ্গাব্দ)  ছিলেন বাঙালি কবি, ঔপন্যাসিক, নাট্যকার, সংগীতস্রষ্টা, চিত্রকর, ছোটগল্পকার, প্রাবন্ধিক, অভিনেতা, দার্শনিক, কণ্ঠশিল্পী। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে “গুরুদেব”, “কবিগুরু”, এবং “বিশ্বকবি” অভিধায় ভূষিত করা হয়।

বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

রবীন্দ্রনাথের ৫২ টি কাব্যগ্রন্থ, ১৩ টি উপন্যাস, ৩৮ টি নাটক এবং ৩৬ টি প্রবন্ধ ও অন্যান্য গদ্যসংকলন তার জীবদ্দশায় বা মৃত্যুর অব্যবহিত পরে প্রকাশিত হয়। তার ৯৫ টি ছোটগল্প ও ১৯১৫ টি গান যথাক্রমে গল্পগুচ্ছ ও গীতবিতান সংকলনের অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। রবীন্দ্রনাথের যাবতীয় প্রকাশিত ও গ্রন্থাকারে অপ্রকাশিত রচনা ৩২ খণ্ডে রবীন্দ্র রচনাবলী নামে প্রকাশিত হয়েছে। তার পত্রসাহিত্যগুলো ১৯ খন্ডে চিঠিপত্র ও চারটি পৃথক গ্রন্থে প্রকাশিত হয়েছে। এছাড়াও তিনি প্রায় দুই হাজার ছবি এঁকেছিলেন। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সেরা উক্তি সমূহ ( উৎস সহ )

ছোট্ট সত্যজিৎ রায়ের সাথে রবীঠাকুর

source : wikipedia

রবীন্দ্রনাথের রচনা বিশ্বের বিভিন্ন ভাষায় অনূদিত হয়েছে। ১৯১৩ সালে গীতাঞ্জলি কাব্যগ্রন্থের ইংরেজি অনুবাদের জন্য তিনি সাহিত্যে নোবেল পুরষ্কার পান। তাকে বাংলা ভাষার সর্বশ্রেষ্ঠ সাহিত্যিক মনে করা হয়। বিভিন্ন রচনায় তার বানী সমূহ পাঠক হৃদয় জয় করে নিয়েছে। তার বিখ্যাত কিছু বাণী উৎস সহ  তুলে ধরা হলো-

  • “ ভক্তের দাসত্বে স্বাধীনতা আছে, ভক্তের স্বাধীন দাসত্ব তেমনি প্রকৃত- প্রণয় স্বাধীন প্রণয়।“ _ আদর্শ প্রেম
  • “ প্রেমের দ্বারা চেতনা যে পূর্ণশক্তি  লাভ করে সেই পূর্ণতার দ্বারাই সে সীমার মধ্যে অসীমকে, রূপের মধ্যে অপরূপকে দেখতে পায়- তাকে নতুন কোথাও যেতে হয় না।“_ শান্তিনিকেতন ৮,২৯
  • “ ফুল যে কেবল বনের মধ্যেই কাজ করছে তা নয়- মানুষের মনের মধ্যেও তার যেটুকু কাজ সে বরাবর করে আসছে।__ শান্তিনিকেতন ১১,১৯
  • “ আমি রূপে তোমায় ভোলাব না, ভালোবাসায় ভোলাব।/ আমি হাত দিয়ে দ্বার খুলব না গো, গান দিয়ে দ্বার খোলাব/ ভরাব না ভূষণ ভরে, সাজাব না ফুলের হারে-/ প্রেমকে আমার মালা করে গলায় তোমার দোলাব।“__ গীতবিতান, প্রেম পর্যায় – ৯০
  • “ মানুষের বিশ্বজয়ের একটা পালা বস্তুজগতে; ভাবের জগতে তার আছে  আর একটা পালা।  ব্যবহারিক বিজ্ঞানে একদিকে তার জয়স্তম্ভ, আর একদিকে শিল্পে সাহিত্যে।“__ সাহিত্যের তাৎপর্য
  • “ প্রেম যাহা দান করে, সেই দান যতই কঠিন হয়, ততই তাহার সার্থকতার আনন্দ নিবিড় হয়।“__ মনুষ্যত্ব
  • “ জ্ঞানের চর্চায় যার মনটা নিরেট হয়ে ওঠে সেখানে উড়ো ভাবনার গ্যাস নীচ থেকে ঠেলে উঠবার মতো সমস্ত ফাটল মরে যায়, সে মানুষের পক্ষে বিয়ে করবার দরকার হয় না“__ শেষের কবিতা
  • “ স্বার্থ আমাদের যে সব প্রয়াসের দিকে ঠেলে ঠেলে নিয়ে যায় তার মূল প্রেরণা দেখি জীব প্রকৃতিতে; যা আমাদের ত্যাগের দিকে, তপস্যার দিকে নিয়ে যায় তাকেই বলি মনুষ্যত্ব, মানুষের ধর্ম।“ __ মানুষের ধর্ম
  • “ মরিতে চাহি না আমি সুন্দর ভুবনে, মানবের মাঝে আমি বাঁচিবারে চাইএই সূর্য করে এই পুষ্পিত কাননে জীবন্ত হৃদয়– মাঝে যদি স্থান পাই।“__ প্রাণ/ কড়ি ও কোমল
শেষের কবিতা
  • “ আপন রুচির জন্যে আমি পরের রুচির সমর্থন ভিক্ষে করি নে।“__ শেষের কবিতা
  • “ যে রত্নকে সস্তায় পাওয়া গেলো তারও আসল মুল্য যে বোঝে সেই জানব জহুরি।“__ শেষের কবিতা
  • “ দুইয়ের কানে যেটা এক পাঁচের কানে সেটা ভগ্নাংশ।“__ শেষের কবিতা
  • “ আপনাকে বৃহতে উপলব্ধি করাই সত্য, অহংসীমায় অবরূদ্ধ জানাই অসত্য। ব্যক্তিগত দুঃখ এই অসত্যে।“__ মানুষের ধর্ম
  • “ যাহাকে তুমি ভালোবাস তাহাকে ফুল দাও, কাঁটা দিও না; তোমার হৃদয় সরোবরের পদ্ম দাও, পঙ্ক দিও না।“__ মনের বাগানবাড়ি
  • “ আমার জীবনের তাপ জীবনের কাজের জন্যেই।“__ শেষের কবিতা
  • “ অন্তরাত্মার গভীর উপলব্ধি প্রকাশ করতে হয়- কেউ বা করে জীবনে, কেউ বা করে রচনায়- জীবনকে ছুঁতে  ছুঁতে।“__ শেষের কবিতা
  • “ অধিকাংশ ক্ষেত্রেই আমরা যাকে পাওয়া বলি সে আর কিছু নয়, হাতকড়া হাতকে যেরকম পায় সেই আর-কি।“__ শেষের কবিতা
  • “ বিয়ে সকলের জন্যে নয়। খুঁতখুঁতে মন যাদের তারা মানুষকে খানিক খানিক বাদ দিয়ে দিয়ে বেছে বেছে নেয়। কিন্তু বিয়ের ফাঁদে জড়িয়ে পরে স্ত্রী পুরুষ যে বড় বেশি কাছাকাছি এসে পরে –মাঝে ফাঁক থাকে না। তখন একেবারে গোটা মানুষকে নিয়েই কারবার করতে হয় নিতান্ত নিকটে থেকে। কোন একটা অংশ ঢাকা রাখবার জো থাকে না।“__ শেষের কবিতা
  • “ বিয়ে করলে মানুষকে মেনে নিতে হয়, তখন আর গড়ে নেবার ফাঁক পাওয়া যায় না।“__ শেষের কবিতা
  • “ রমণীর প্রেমের মধ্যে পরিতৃপ্তি আছে, বিশ্বাস আছে, নিষ্ঠা আছে, কিন্তু পুরুষের প্রেমের মধ্যে যে একটি চির অতৃপ্তিময় সুখ আছে তাহা বোধ করি খুব কম রমণী উপভোগ করিয়াছে।“__ স্ত্রী পুরুষের প্রেমে বিশেষত্ব
  • “ স্ত্রী- পুরুষগত প্রেমের ন্যায় প্রবল শক্তি আর কিছু আছে কি না সন্দেহ। এই শক্তি ষোলো আনা মাত্রায় সমাজের কাজে লাগাইলে মানবসভ্যতা অনেকটাই বল পায়। এই শক্তি হইতে বঞ্চিত করিলে সমাজের একটি প্রধান বল অপহরণ করা হয়।“__ সমাজে স্ত্রী পুরুষের প্রেমের প্রভাব
  • “ বৎসরের পর বৎসর নীরবে চলে যায়, তার মধ্যে বাণী একদিন বিশেষ প্রহরে হঠাৎ মানুষের দ্বারে এসে আঘাত করে। সেই সময়ে দ্বার খোলবার চাবিটি যদি না পাওয়া যায় তবে কোনোদিনই ঠিক কথাটি অকুণ্ঠিত স্বরে বলবার দৈব শক্তি আর জোটে না।“__ শেষের কবিতা
  • “ ঐশ্বর্য দিয়েই ঐশ্বর্য দাবি করতে হয়, আর অভাব দিয়ে চাই আশীর্বাদ।“ __ শেষের কবিতা
  • “ ভালোবাসা অর্থ আত্মসমর্পণ করা নহে, ভালোবাসা অর্থে ভালো বাসা, অর্থাৎ অন্যকে ভালো বাসস্থান দেওয়া, অন্যকে মনের সর্বাপেক্ষা ভালো জায়গায় স্থাপন করা।“__ মনের বাগানবাড়ি
শান্তিনিকেতনে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
  • “ প্রেম শান্তিরূপেও আসবে অশান্তিরূপেও আসবে, সুখ হয়েও আসবে দুঃখ হয়েও আসবে- সে যে কোনো বেশেই আসুক তার মুখের দিকে চেয়ে যেন বলতে পারি তোমাকে চিনেছি, বন্ধু তোমাকে চিনেছি।“__ শান্তিনিকেতন
  • “ সোনার চেয়েও আনন্দের দাম বেশি।“__ পশ্চিম যাত্রীর ডায়ারি
  • “ সুন্দর আপনি সুন্দর এবং অন্যকে সুন্দর করে। কারণ, সৌন্দর্য হৃদয়ে প্রেম জাগ্রত করিয়া দেয় এবং প্রেমই মানুষকে সুন্দর করিয়া তোলে।“__ সৌন্দর্য ও প্রেম
  • কবিদিগকে আর কিছুই করিতে হইবে না, তাঁহারা কেবল সৌন্দর্য ফুটাইতে থাকুন- জগতের সর্বত্র যে সৌন্দর্য আছে তাহা তাঁহাদের হৃদয়ের আলোকে পরিস্ফুট ও উজ্জ্বল হইয়া আমাদের চোখে পড়িতে থাকুক, তবেই আমাদের প্রেম জাগিয়া উঠিবে, প্রেম বিশ্বব্যাপী হইয়া পড়িবে।“__ কবিতা ও তত্ত্ব
  • “ আগুনকে যে ভয় করে সে আগুনকে ব্যবহার করতে পারে না।“__ চার অধ্যায়
  • “ পৃথিবীতে সকলের চেয়ে বড় জিনিস আমরা যাহা কিছু পাই তাহা বিনামুল্যেই পাইয়া থাকি, তাহার জন্য দরদস্তুর করিতে হয় না। মুল্য চুকাইতে হয় না বলিয়াই জিনিসটা যে কত বড় তাহা আমরা সম্পূর্ণ বুঝিতেই পারি না।“__ পরিচয়/ ভগিনী নিবেদিতা
  • “ সহজকে সহজ রাখতে হলে শক্ত হতে হয়। ছন্দকে সহজ রাখতে চাও তো যতিকে ঠিক জায়গায় কষে আঁটতে হবে।“__ শেষের কবিতা
  • “ মেনে নেওয়া আর মনে নেওয়া এই দুইয়ে যে তফাত আছে।“__ শেষের কবিতা
  • “ মেয়েদের ভালোলাগা তার আদরের জিনিসকে আপন অন্দরমহলে একলা নিজেরই করে রাখে, ভিড়ের লোকের কোনো খবরই রাখে না। সে যত দাম দিতে পারে সব দিয়ে ফেলে। অন্য পাঁচজনের সাথে মিলিয়ে যাচাই করতে তার মন নেই।“__ শেষের কবিতা
  • কেতকীর সঙ্গে আমার সম্পর্ক ভালোবাসারই, কিন্তু সে যেন ঘড়ায় তোলা জল- প্রতিদিন ব্যবহার করব। আর লাবণ্যের সঙ্গে আমার যে ভালোবাসা সে রইল দিঘি,সে ঘরে আনবার নয়, আমার মন তাতে সাঁতার দেবে।“__ শেষের কবিতা
  • “ রবি ঠাকুরের লেখা যতক্ষণ না লোকে একেবারে ভুলে যাবে ততক্ষণ ওর ভালো লেখা সত্য করে ফুটে উঠবে না।“__ শেষের কবিতা

আরো জানতে ক্লিক করুন

তিতুনি এবং তিতুনি

  •  


Popular Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.