বকুল ফুলঃ মনোয়ারুল ইসলাম

▪️বকুল ফুল (রিভিউ) “বকুল ফুল” উপন্যাসের গল্পটি আমার কাছে চমৎকারভাবে বর্ণিত রোমাঞ্চকর ধোঁয়াশা, মিষ্টি ভালোবাসার বর্ণনা, পদে পদে টুইস্ট এবং […]

▪️বকুল ফুল (রিভিউ)

“বকুল ফুল” উপন্যাসের গল্পটি আমার কাছে চমৎকারভাবে বর্ণিত রোমাঞ্চকর ধোঁয়াশা, মিষ্টি ভালোবাসার বর্ণনা, পদে পদে টুইস্ট এবং অতিপ্রাকৃত ঘটনার মিশেল মনে হয়েছে।

বকুল ফুল
বকুল ফুল

লেখনশৈলী যেমন সুন্দর, তেমনই সুন্দরভাবে বর্ণনা করা হয়েছে গল্পের চরিত্রগুলোকে। এছাড়াও “বকুল ফুল” এ আপনি দেখতে পাবেন অতিপ্রাকৃত ঘটনাগুলোর মাঝে মিষ্টি ভালোবাসার গল্প সাথে ষড়যন্ত্রমূলক চরিত্রের তৈরিকৃত নানা রকমের বাঁধা।কখনো এমনটা ভয়াবহ বর্ণনা পাবেন তখন মনে হবে বইটি হরর আবার কখনো রোমান্টিক।অসাধারণ গল্পগুলোকে লেখক তাঁর  অসাধারণ লেখনশৈলী দিয়ে পরিপূর্ণ রুপ দিয়েছেন।আপনি যদি দারুণ একটি অতিপ্রাকৃত এডভেঞ্চারাস রোমান্টিক গল্প পড়তে চান তাহলে “বকুল ফুল” হবে একটি ভালো নির্বাচন।

“বকুল ফুল” উপন্যাসটিতে সবগুলো অধ্যায় একটির সঙ্গে আরেকটি এমনভাবে সম্পর্ক তৈরি করে আছে এর কারণে পুরো বইটি না পড়া পর্যন্ত মনে হতে থাকবে এরপরে কী,এরপরে কী।অর্থাৎ বইটিকে একজন বইপোকা একটানা পড়ে শেষ করে ফেলতে পারবে।

⚠ বর্ধিতাংশ 👇

◾নিচে বইটি সম্পর্কে পয়েন্ট আকারে আরও কিছু তথ্য উপস্থাপন করা হলো-

🔹পটভূমিঃ উপন্যাসটির পটভূমি আমার কাছে ব্যক্তিগতভাবে অনেক স্ট্রং মনে হয়েছে। উপন্যাসটির পটভূমির কারণে লেখক গল্পটির অনেক বিস্তৃত করতে পেরেছেন অসম্ভব সুন্দর গাঁথুনির মাধ্যমে।

বইটির পটভূমিতে মূলত একটি অতিপ্রাকৃত বিশ্বাসী মানুষদের বসবাসরত গ্রাম আছে এবং গ্রামটির জমিদারবাড়ি এবং আশেপাশের বিষয়বস্তু নিয়ে পটভূমিটি বিস্তৃতি লাভ করেছে এছাড়াও নির্জন মাঠ, ট্রেন ভ্রমন ইত্যাদি চমৎকার সব পটভূমিতে গল্পগুলো তৈরি হয়েছে।

🔹গল্পের গঠনঃ “বকুল ফুল” উপন্যাসটিতে  গল্পের যেভাবে গঠন করা হয়েছে সেটি আমার কাছে আট দশটা উপন্যাসের গল্পের মতো না মনে হয়ে একদমই নতুন মনে হয়েছে।গল্পগুলো কোন দিকে যাচ্ছে, নির্দিষ্ট কোন একটা কাহিনির সমাপ্তি বইয়ের মাঝে দেখা যাবে না।এমনকি বইটি শেষ করেও আপনি সমাপ্তি টানতে পারবেন না।তবে প্রতিটি মূহুর্তে আপনাকে একটা নতুন অভিজ্ঞতার দুনিয়ায় পরিভ্রমণ করাবে প্রতিটি সময়।গল্পের প্রতিটি মোড়ের মধ্যেই আপনি আগ্রহ খুঁজে পাবেন।এবং পটভূমি এবং গল্পের গঠনের নিপুণতার কারণে উপন্যাসটি দ্বিতীয় বই “বাঁশি’তে” রুপান্তরিত হয়েছে।

🔹চরিত্র গঠনঃ চরিত্র গঠনের ক্ষত্রে একবারে আপনি চরিত্র সম্পর্কে অর্থাৎ চরিত্রগুলোর শারিরীক বর্ণনা,কাজকর্ম কিছুই ধরতে পারবেন না।গল্পের মাঝে মাঝে প্রয়োজনের তাগিদে সেগুলো বর্ণীত আছে।আর এটি যেহেতু কিছুটা অতিপ্রাকৃত, রোমান্টিক, পাশাপাশি বলা যায় কিছুটা থ্রিলার কাহিনী তাই এর মাঝে চরিত্র গুলোকে অনেকটাই প্রথম দিকে ধোঁয়াশার মধ্যে রেখে দিয়েছেন লেখক।

বকুল ফুল বইটিতে মূল চরিত্র গুলো হলো-

১.বর্ণনাকারী যুবক

২.স্মিতা চৌধুরী

৩.রুক্সিনী চৌধুরী

৪.রহিম চাচা

৫.সেলিম,মনা,পুলিশ সহ আরও অনেকে।

🔹গল্পবাঁকঃ “বকুল ফুল” এর ক্ষত্রে আমি বলবো আপনি প্রথম পেজ পড়ে বলতে পারবেন না যে ৩য় অথবা ৪র্থ পেজে কাহিনী কোন দিকে মোড় নিবে।আপনি যতবারই অনুমান করতে যাবেন ততবারই আপনার অনুমানকে ভুল প্রমাণিত করবে।তবে আপনি হয়তো এই ধরনের উপন্যাসে অনেক বেশি অভস্ত্যতার কারণে কিছুটা অনুমান করতে পারবেন কিন্তু আমাকে লেখক একদম নাকানিচুবানি খাওয়েছে।যদিও আমার উপন্যাস পড়ার সংখ্যা নিতান্তই খারাপ না।এবং যেহেতু কিছুক্ষণ পরপরই গল্পের টুইস্ট পাবেন তাই গল্পটি পড়তে আমার মনে হয়না একঘেয়েমি আসবে। 

🔹লেখনশৈলীঃ এটিই আমার পড়া লেখকের প্রথম বই।তবে প্রথম লেখা দিয়েই লেখক আমার মন জয় করে নিয়েছে এবং বাঁশি পড়ার আগ্রহ তৈরি করেছে।একদম ভিন্ন ধর্মী লেখনশৈলী আমার কাছে মনে হয়েছে।তার লেখার মাঝে রোমাঞ্চকর ধোঁয়াশা, মিষ্টি ভালোবাসার বর্ণনা, পদে পদে টুইস্ট, অতিপ্রাকৃত ঘটনাগুলোর বর্ণনা একদমই মন ছুয়ে যাওয়া মতো আমার কাছে মনে হয়েছে।

🔹বিবিধঃ বইটির বাইন্ডিং, লেখা, প্রচ্ছদ সবকিছু অসাধারণ ছিল।তবে কিছু কিছু জায়গায় বানান ভুল পেয়েছি হয়তো এটি প্রুফ রিডিং মিস্টেক মনে হয়েছে।

লেখক পরিচিতিঃ মনোয়ারুল ইসলাম হলেন বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় তরুণ লেখক।জন্ম ১৬ই ডিসেম্বর ব্রাহ্মণবাড়িয়া।লেখকের প্রথম প্রকাশিত গ্রন্থ “ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ভাষায় অভিধান”।এছাড়াও লেখকের লেখা অন্য বইগুলো~

১.বকুল ফুল

২.বাঁশি (বকুল ফুল উপন্যাসের দ্বিতীয় পার্ট)

৩.নয়নতারা

৪.বিড়ালাক্ষী 

৫.নয়ন তাহারে পায় না দেখিতে

বকুল ফুল
বকুল ফুল

ছবিঃ http://Facebook

◾ভালোলাগা ও মন্দ লাগা এবং পাঠ প্রতিক্রিয়াঃ- আমার কাছে আসলে সবকিছুই অনেক বেশিই ভালো লেগেছে।আমার সঙ্গে লেখকের বা লেখকের লেখার কোন পরিচয় ছিল না এর আগে।তবে লেখকের এই লেখাটি দিয়েই লেখক আমার মন জয় করে নিয়েছে।খারাপ লাগা বললে কিঞ্চিৎ সময়ে মনে হয়েছিল গল্পটি বেশিই ধোঁয়াশা ময়।যদিও পরবর্তীতে সেটি ভুল প্রমাণিত হয়েছে

▫️বইয়ের লেখকঃ মনোয়ারুল ইসলাম

▫️প্রকাশকঃ রেদওয়ানুর রহমান জুয়েল

▫️প্রকাশনীঃ নালন্দা প্রকাশনী

▫️প্রচ্ছদঃ মোস্তাফিজ কারিগর

▫️পৃষ্ঠা সংখ্যাঃ ১৩৫

▫️প্রচ্ছদ মূল্যঃ ২৭৫ টাকা

▫️ব্যাক্তিগত রেটিংঃ ৯.৫/১০

বকুল ফুল
বকুল ফুল

আপনি কী এমন আরও বুক রিভিউ পড়তে চান,তাহলে কন্ঠনীড়ের সঙ্গেই থাকুন।


Popular Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.