• Home
  • রিভিউ
  • এটিকুয়েটা সেরা বুক রিভিউ ২০২১

এটিকুয়েটা সেরা বুক রিভিউ ২০২১

এটিকুয়েটা সেরা বুক রিভিউ ২০২১ ~বইটি হাতে পাওয়ার পরে যে-ধরনের এক্সপেকটেশন রেখেছিলাম,বইয়ের গল্পগুলো সম্পর্কে।বইটি পড়ার পরে আমার এখন মনে হচ্ছে,আমার […]

এটিকুয়েটা সেরা বুক রিভিউ ২০২১

~বইটি হাতে পাওয়ার পরে যে-ধরনের এক্সপেকটেশন রেখেছিলাম,বইয়ের গল্পগুলো সম্পর্কে।বইটি পড়ার পরে আমার এখন মনে হচ্ছে,আমার ফ্রাস্ট এক্সপেকটেশন এর তুলনায় গল্পগুলো অধিকাংশ ক্ষেত্রেই অনেক অনেক বেশি রোমাঞ্চকর।তবে মজার বিষয় হলো, আমার প্রথম এক্সপেকটেশনও নিতান্তই সামান্য ছিল না। তাহলেই এখন অনুমান করতে পারেন বইটি কতটা সুন্দর হতে পারে।

[যারা দীর্ঘ রিভিউ পছন্দ করেন নাহ, আমার মনে এয় আপনাদের জন্য উপরের কয়েকটা বাক্যই যথেষ্ট।চাইলে এখানেই কুয়েট করতে পারেন।]

আমার আসলে “হরর” বই তেমন একটা বেশি পড়া নেই,তবে ছোটবেলা থেকেই অনেক হরর গল্প শুনেছি এবং হরর সিনেমাও দেখেছি।তবে সেগুলোর উপর ভিত্তি করে বললেও বইটি অনেকটা ভালো।তারপরও সিনেমাতে যেমন অনেক বাজনা, গ্রাফিক্স ইফেক্ট থাকে।

বইটিকে আমি আরও জাস্টিফাই করার উদ্দেশ্য গল্পগুলো বিভিন্ন পরিবেশ এবং আবহাওয়ার মাঝে পড়ার চেষ্টা করেছি।কখনো একদম অন্ধকারাচ্ছন্ন নিরব পরিবেশে টিমটিমে আলোতে, কখনো দিনের ঝকঝকে পরিবেশে,কখনো আবার পরিবারের সকলের উপস্থিতিতে।তবে বইটি আমাকে কোন পরিবেশেই মুখ থুবড়ে পড়ার মতো হতাশ করেনি বরং সকল পরিবেশেই বইটি তার নিজের ফ্লেভার বজায় রেখেছে।

একজন নিছক কট্টর সমালোচক হওয়ার ব্যর্থ প্রয়াসে অনেক খুঁটিনাটি ভুলগুলো ধরার চেষ্টা করেছি।সেই সামান্য ভুলগুলো ধরতে গিয়েও আমাকে রীতিমতো বেগ পেতে হয়েছিল।তবে সেগুলো পরবর্তীতে বলবো।

বইটি আমার কাছে অনেক বেশি প্রিয় হয়ে ওঠার আরও অনেক কারণের মধ্যে উল্লেখযোগ্য কারণগুলো হলো- আমার “ফিমেইল সাইকোলজি” নিয়ে মোটামুটি একটা ভালো ধরনের আগ্রহ রয়েছে, এবং জাফর ইকবাল, হুমায়ূন আহমেদ স্যারদের গল্প-উপন্যাস অনেক বেশি পড়ার কারণে আমার মেইল(পুরুষ) দৃষ্টিকোণ থেকেই বেশি গল্প কল্পনা করার সুযোগ হয়েছে।তবে লেখিকা নীলা মনি গৌসামী তার এটিকুয়েটা বইটিতে বহুলাংশে সনাতনধর্মী চরিত্র এবং ফিমেল(নারী) দৃষ্টিকোণ থেকেই গল্পগুলো তৈরি করেছেন।এই কারণে আরও বেশি ভালো লেগেছে।একে-তো আমার বহু-ধর্ম সম্পর্কে জানার আগ্রহ আছে সেই ক্ষত্রে বইটি আমাকে অনেকগুলো ভালো মনস্তাত্ত্বিক চিন্তাধারার সম্পর্কে অবগত করার সুযোগ করে দিয়েছে।

এটিকুয়েটা বইয়ের সবচেয়ে ভালো লেগেছে লেখিকা বইটির প্রায় প্রতিটি গল্পের শেষে টুইস্ট রেখে দিয়েছে যেগুলো সাধারণত থ্রিলার গল্পে বেশি দেখা গেলেও অন্যান্য বইয়ে কম দেখা যায়।কিন্তু এটিকুয়েটাতে আমি কল্পনা করার অনেক বড় একটা স্থান দেখতে পেয়েছি যা সত্যিই প্রশংসনীয়।

▪️বইটিতে মোট যে ১০টি গল্প স্থান পেয়েছে~

১.দেবতা

২.ছলনা

৩.জিভে তিল থাকলে যা হয়

৪.আমার বাবা

৫.তমা

৬.শাকিনী

৭.ফ্যামিলি

৮.প্রভু পেমন

৯.জাদুর গাছ

১০.এটিকুয়েটা

~উপরে উল্লেখিত গল্পগুলোও মূলত বইটিতে স্থান পেয়েছে।গল্পগুলোকে লেখিকা “হরর ও ফ্যান্টাসি” বলে উল্লেখ করলেও আমি বলবো হরর উইথ ফ্যান্টাসি।আমি বলবো রোমান্টিক, থ্রিলার এবং নন-ফিকশন বইয়ের মাঝে হয়তো আপনার দৃর্ঘীদিনের একঘেয়েমি দূর করতে বইটি হতে পারে একটি শুভসূচনা।

⚠ বর্ধিতাংশ 👇

▪️নিচে বইটি সম্পর্কে পয়েন্ট আকারে আরও কিছু তথ্য উপস্থাপন করা হলো-

🔹গল্পের পটভূমি ও গল্পগঠনঃ গল্পের বেশিরভাগই অতি কাল্পনিক পটভূমিতে গঠিত হয়েছে।এবং গল্পগুলো সনাতন(হিন্দু) পরিবারের  [আধুনিক ও প্রাচীনত্বের]।এবং গল্পগুলোতে নারী দৃষ্টিকোণ থেকেই গল্পগুলো তৈরি করা হয়েছে। তবে বইটিতে মুসলিম প্রেক্ষাপটেরও সন্ধান পাওয়া যাবে।এছাড়াও একটি গল্প মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক সাই-ফাই।এক কথায় মিক্স জনরার অনেক সুন্দর একটি হরর গল্প সংকলন।

🔹গল্পবাঁকঃ মোটামুটি বলা চলে ভালো সংখ্যক বই-ই পড়েছি আমি আমার ছোট্ট জীবনে।এবং এরই ফলপ্রসূতিতে টুইস্ট ধরতে পারার বিশেষ ক্ষমতাও মোটামুটি ভালোই আয়ত্তে আছে।তবে কেন জানি হরর গল্প বলে অথবা লেখিকার অসাধারণ কল্পনাশক্তির বহিঃপ্রকাশের কারণে অনেকবারই খুবই অল্প পরিমাণ এন্ডিং স্টোরি ধরতে পেরেছি তবে বেশিরভাগ সম্ভাবনা অবশ্য কাছাকাছি ছিল।আর শেষে এমন ভাবে প্রতিটি গল্প শেষ হয়েছে যে,এন্ডিং বুঝতে পারাটা একটু ডিফিকাল্ট তবে খুবই ভালো কল্পনা করার স্থান পাবেন।

🔹লেখন শৈলীঃ লেখনশৈলীতে আমি কিছুটা ত্রুটি খুজে পেয়েছি তবে সেগুলো এতোটাই সামান্য যে,অনেকেই এগুলোকে ত্রুটি হিসেবে হয়তো বিবেচনা করতেই নারাজ হবেন।তবে আগেই বলেছি কট্টর সমালোচক হওয়ার ব্যার্থ চেষ্টা থেকে কিছু ত্রুটি বের করার চেষ্টা করেছি আর সেটি হচ্ছে গল্পগুলোর মাঝে থেকে শেষ পর্যন্ত অসাধারণ হলেও দুই তিনটি গল্পের শুরুটা আরও বেশি সুন্দর করা যেত।তবে বড় বড় লেখকদেরও অনেক সমালোচনা থাকে তবে আমি মনে প্রাণে বিশ্বাস করতে চাই লেখিকার কোন ন্যাগেটিভ সমালোচনা থাকবে না এবং এটির জন্য অবশ্যই লেখন শৈলীতে আরও ইম্প্রুভ আনতে হবে বিশেষকরে কথোপকথন যেগুলো সাধারণ পটভূমিতে হয়েছে সেগুলো অনেক বেশিই (ফেসবুক) রিয়েলিস্টক হয়েছে।

◾বই নিয়ে কিছু কথাঃ-(প্রচ্ছদ,মলাট, বাঁধাই,পেপার কোয়ালিটি…): নতুন প্রকাশনী হিসেবে বইয়ের কোয়ালিটি অনেক বেশিই ভালো হয়েছে।অন্যান্য বড় বড় প্রকাশনী, দাম ও অন্যান্য দৃষ্টিকোণের ভিত্তিতে।

◾লেখিকা পরিচিতিঃ Neela মনি গোস্বামী ১৯৯৬ সালের ২৭ ডিসেম্বর কুমিল্লায় জন্মগ্রহণ করেন। তিনি মূলত নিজেকে ভীষণ হাসিখুশি এবং খানিকটা পাগল(মিষ্টি) টাইপের হিসেবে আনঅফিশিয়ালি পরিচয় দিয়ে থাকেন, যার অনেকগুলো স্বপ্নের মধ্যে অন্যতম হলো নিজের লেখা একগাদা বই হাতে নিয়ে ঘুরে বেড়ানো।

তিনি বর্তমানে রাজধানী ঢাকায় থাকেন।এবং ন্যাশনাল কলেজে অব হোম ইকোনমিক্স – এ “শিশু বিকাশ ও সামাজিক সম্পর্কে” অধ্যয়নরত আছেন।এছাড়াও তিনি অনলাইন ভিত্তিক জনপ্রিয় স্কিল শেয়ারিং প্লাটফর্ম “রাইটার্স ক্লাব বিডি” এর প্রতিষ্ঠিতা পরিচালক হিসাবে কাজ করছেন।

লেখিকার অন্যান্য বই সমূহ~

১.কঙ্কাল সরোবর

২.তাকে ভালোবেসে

বই পরিচিতি

বইয়ের নামএটিকুয়েটা (হরর ও ফ্যান্টাসি)
বইয়ের লেখিকানীলা মনি গোস্বামী
প্রকাশনীনহলী প্রকাশনী
প্রচ্ছদজুলিয়ান
পৃষ্ঠা সংখ্যা৯৬ 
প্রচ্ছদ মূল্য২৩০ টাকা
ব্যাক্তিগত রেটিং৯.০/১০
রিভিউ লেখকমো. নিলয় হোসেন

আরো জানতে ক্লিক করুন


Popular Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.